শ্যুটিং সেটে অভিনেত্রীর ‘আত্মহত্যা’: বিচ্ছেদ, অবসাদ নাকি লাভ জিহাদের বলি?

শ্যুটিং সেটে অভিনেত্রীর ‘আত্মহত্যা’: বিচ্ছেদ, অবসাদ নাকি লাভ জিহাদের বলি?
শ্যুটিং সেটে অভিনেত্রীর ‘আত্মহত্যা’: বিচ্ছেদ, অবসাদ নাকি লাভ জিহাদের বলি?

বলিউড ও টেলিভিশন অভিনেত্রী তুনিশা শর্মার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উঠে আসছে নানা রকম তথ্য। গ্রেফতার হয়েছেন অভিনেত্রীর ছেলে বন্ধু শিজান খান। তুনিশার মায়ের অভিযোগ, আত্মহত্যায় প্ররোচনা দিয়েছেন শিজান।

এর আগে গেলো শনিবার মুম্বাইয়ের একটি টিভি সিরিয়ালের শ্যুটিং সেটের মেকাপ রুম থেকে উদ্ধার হয় তুনিশা শর্মার মৃতদেহ। তাৎক্ষনিক সহকর্মীরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসক তুনিশাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তুনিশার বয়ফ্রেন্ডকে জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশের দাবি, মাত্র ১৫ দিন আগেই বিচ্ছেদ হয় শিজানের সাথে তার। এ নিয়ে নাকি অবসাদে ভুগছিলেন অভিনেত্রী। এই টালমাটাল সম্পর্কের জেরেই আত্মহত্যা করে থাকতে পারে তুনিশা, এমনটা ধারণা করছে পুলিশ।

এছাড়া এর আগে একবার এক সাক্ষাৎকারেও তুনিশা জানিয়েছিলেন তার অবসাদের কথা। তিনি বলেছিলেন, তার দাদি ও এক কাজিনকে হারানোর পর থেকে তিনি মানসিক অবসাদে থাকেন। তার রুটিন ভেঙে পড়েছে। এ নিয়ে নাকি চিকিৎসকের সাথে কথাও হয়েছিলো তার।

এদিকে মহারাষ্ট্রের বিজেপি নেতা গিরিশ মহাজনের দাবি, “লাভ জিহাদের” কারণে তুনিশা আত্মহত্যা করেছে এবং পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে। যদিও ঘটনায় ‘লাভ জিহাদ’র কোনো সম্পৃক্ততা পায়নি পুলিশ। তার আরও দাবি, মহারাষ্ট্র সরকার “লাভ জিহাদ” বন্ধে কঠোর আইন করতে যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, মাত্র ১৪ বছর বয়সে অভিনয় জগতে পা রাখেন তুনিশা। ২০১৬ সালে ক্যাটরিনা কাইফের ‘ফিতুর’ সিনেমায় কাজের মাধ্যমে বলিউডে অভিষেক হয় তার। এরপর সালমান খানের দাবাং ৩, বারবার দেখোসহ বেশ কিছু জনপ্রিয় টিভি সিরিয়ালে কাজ করেন তুনিশা। তার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে শোকের ছায়া নেমে এসেছে ভারতীয় টেলিভিশন অঙ্গনে। বলিউডের চেয়ে টিভিতেই বেশি জনপ্রিয় ছিলেন তুনিশা।

এটিএম/

Scroll to Top