রাজধানীর কাঁঠালবাগানে ‘মুঠোফোনের বিরোধে’ কিশোর খুন

শিপনের বাবা মজিবুর মিয়া বলেন, রাত ১০টার দিকে শিপনকে স্বাধীন নামের স্থানীয় এক কিশোরের সঙ্গে ঘোরাঘুরি করতে দেখেন তিনি। রাত ১০টার পর তাঁর কাছে খবর আসে শিপনকে কুপিয়েছে স্বাধীন। রক্তাক্ত অবস্থায় শিপনকে উদ্ধার করে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যান তিনি। 

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, শিপনকে আনার পরপরই কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। 

শিপনের বাবার দাবি, হামলাকারী স্বাধীন ও তার সহযোগীরা মাদকাসক্ত ও ছিনতাইয়ে জড়িত। অপরাধ সংঘটনে রাজি করাতে না পেরে হয়তো শিপনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে।