মেয়ের হাতে আমার নাম দেখে বিয়ে না করে চলে যায় ছেলে : জায়েদ

ঢাকাই সিনেমার চিত্রনায়ক জায়েদ খান। একাধিকবার নারীদের নিয়ে বিভিন্ন বক্তব্য দিয়েছেন তিনি। জায়েদের দাবি, তার রয়েছে অসংখ্য নারী ভক্ত। সেসকল ভক্তদের নানা পাগলামির ঘটনাও বিভিন্ন সময় শেয়ার করেছেন গণমাধ্যমে।

এবার তেমনই এক অভিজ্ঞতার কথা জানালেন নতুন করে। সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে হাজির হয়েছিলেন জায়েদ খান। যেখানে অভিনেতা জানান, তার প্রতি পাগলামির কারণে এক ছেলে তার প্রেমিকার সঙ্গে ব্রেকআপ করেছে। শুধু তাই নয়, এক নারী তার হলুদের অনুষ্ঠানে হাতে জায়েদের নাম লেখায় বিয়েই পণ্ড হওয়ার অবস্থা হয়েছিল।

জায়েদ বলেন, ‘উত্তরার একটি মেয়ে তার বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে ব্রেকআপ করেছে শুধুমাত্র আমার কারণে। মেয়েটি তার বয়ফ্রেন্ডকে বলেছে, সে আমাকে খুব পছন্দ করে। সারাদিন আমার ভিডিও দেখে। আমি তার মেন্টালিটিতে আটকে আছি। যা শুনে বয়ফ্রেন্ড সহ্য করতে পারেনি। ব্রেকআপ করে ফেলেছে।

শুধু তাই নয়, এরপর জায়েদ বললেন- একটা মেয়ে তার বিয়ের হলুদের অনুষ্ঠানে হাতের মাঝখানে ‘জায়েদ’ লিখেছে। বিয়ে করতে এসে ছেলে হাতে আমার নাম দেখে রাগ করে সেখান থেকে চলে গেছে। বিষয়টি ছেলের বন্ধু আমাকে ফোন দিয়ে জানায়। এরপর আমি তার সঙ্গে কথা বলে বুঝিয়ে বিষয়টি সমাধান করি। এরপর তাদের বিয়ে হয়েছে।

এর আগেও এই অভিনেতা বলেছেন, ‘একটি অনলাইনে দেখলাম আমার ছবি বালিশের কাভারে দিয়ে ডেলিভারি দেয়া হচ্ছে। ভালো না বাসলেও কিন্তু আমাকে অ্যাটেনশন দেয়া হচ্ছে। অনেকেই ট্রল করলেও আমি পজিটিভভাবে দেখি। কারণ মানুষ এতো ব্যস্ততার মধ্যেও আমাকে সময় দিচ্ছে। নিশ্চয়ই আমি আলোচনার বিষয়। আমার ভিডিওগুলোতে মিলিয়ন মিলিয়ন ভিউস হচ্ছে। এগুলো কেন হচ্ছে? নিশ্চয়ই মানুষ আমাকে পছন্দ করে বলে দেখেছে।’

নিজের বিয়ে নিয়ে জায়েদ খানের ভাষ্য, ‘বিয়ে করলেই তো বাসি হয়ে গেলাম। এ জন্য একটু সময় নিচ্ছি। বিয়ে করলে অনেকের মন ভেঙে যাবে আমি জানি। ইনবক্সে (ফেসবুক মেসেঞ্জার) সবাই বলতে থাকে প্লিজ এভাবে থাকেন, বিয়ে করবেন না।’

Scroll to Top