বঙ্গবন্ধু ইনোভেশনে কোটি টাকার অনুদান পেল ‘ওপেন রিফ্যাক্টরি’

স্টার্টআপদের অনুপ্রাণিত করতে আয়োজিত প্রতিযোগিতা ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১’ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। যেখানে বিজয়ী হয়েছে বাংলাদেশের স্টার্টআপ ‘ওপেন রিফ্যাক্টরি’। প্রতিষ্ঠানটি অনুদান পেয়েছে ১ লাখ মার্কিন ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ কোটি টাকার সমান।

এছাড়া, দেশীয় স্টার্টআপদের নিয়ে অনুষ্ঠিত রিয়েলিটি শো এর থেকে নির্বাচিত ২৬ টি এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সেরা ১০টি স্টার্টআপ অর্থাৎ দেশি-বিদেশি নির্বাচিত মোট ৩৬ টি স্টার্টআপের প্রত্যেকেই পাচ্ছে ১০ লক্ষ টাকা করে মোট ৩ কোটি ৬০ লক্ষ টাকার অনুদান।

শনিবার (৩০ অক্টোবর সকালে) এই বিশেষ আয়োজনের গ্র্যান্ড ফিনালে রাজধানী ঢাকার আগারগাঁও এ অবস্থিত বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মাল্টিপারপাস অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

সেখানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, তরুণ উদ্ভাবকদের সহায়তায় চলতি বাজেটে সরকার ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছে। আজকের তরুণ উদ্ভাবকরাই দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

তিনি বলেন, অর্থ কোনো সমস্যা নয়। সমস্যাকে সম্ভবনা হিসেবে রূপান্তরিত করেই আমরা সঠিক দিক নির্দেশনায় এগিয়ে যাবো।

সবশেষে তিনি বলেন,‘বিগ ২০২১’ আয়োজন হলো এমন একটি উদ্যোগ যা স্টার্টআপ সংস্কৃতি গঠন ও  উন্নয়নের বর্তমান সরকারের অঙ্গীকারের একটি সুস্পষ্ট প্রতিফলন।

সভাপতির বক্তব্যে তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক বলেন, ইনোভেশন ইকোসিস্টেম গড়ে তোলার মাধ্যমে উদ্ভাবনী জাতি গঠন করার লক্ষ্যে অল্পদিনের মধ্যেই একটি স্টার্টআপ পলিসি প্রণয়ন করা হবে।

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১ প্রতিযোগিতায় বিদেশের মোট ২৫৫টি প্রকল্প গৃহীত হয়। সেখান থেকে দুই দফায় বাছাই শেষে নির্বাচন করা হয় সেরা ১০টি আন্তর্জাতিক পর্যায়ের স্টার্টআপ। যারা চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেয়। অন্যদিকে দেশীয় স্টার্টআপগুলোকে যাচাই-বাছাই ও রিয়েলিটি শোয়ের মাধ্যমে ২৬টি স্টার্টআপ বাছাই করা হয়। এছাড়াও আইডিয়া প্রকল্পের পোর্টফলিও স্টার্টআপের সেরা ১০টি স্টার্টআপ চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেয়। এই ৪৬টি স্টার্টআপের মধ্যে একটি স্টার্টআপকে চূড়ান্তভাবে জয়ী করা হয়।

রিয়েলিটি শো থেকে প্রাপ্ত সেরা ২৬ স্টার্টআপগুলো হলো:

ওপেনরিফ্যাক্টরি, টিঙ্কার’স টেকনোলজিস লিমিটেড, বন্টন কানেক্ট লিমিটেড, র‍্যাডএসিস্ট, বইঘর ট্রেডিং কেয়ার, অলওয়েল বিডি লিমিটেড, ল্যান্ডনক লিমিটেড, ইনোভেইস টেকনোলজিস, লাইফস্প্রিং কন্সালটেন্সি লিমিটেড, আইডিয়া থ্রী ডি সলিউশনস, ক্যাপ্টেন আর্থ- বি দ্যা চেইঞ্জ, আপস্কিল, সাইকিওর অর্গানাইজেশন, প্লাস্টাইল, ব্রেইলি টেক লিমিটেড, ইনক্লুশন এক্স, স্মার্ট হোয়াইট কেইন, ডিঙ্গি টেকনোলজিস লিমিটেড, গোস্ট কিচেন বাংলাদেশ লিমিটেড, অ্যান্টস এরিয়াল সিস্টেমস লিমিটেড, আলো, সাইনটিকো লিমিটেড, খেলবেই বাংলাদেশ, জোবাইক, অনলাইন সহপাঠী, রোবোল্যাব।

আন্তর্জাতিক সেরা ১০টি স্টার্টআপগুলো হলো: থার্মো নর্থ, মাই ক্যাশ মানি পিটিই লিমিটেড, এগ্রোভিজিও, ইঙ্ক স্পায়ার্ড, ডব্লিউটিম, সোসো কেয়ার, গ্র্যান্ট মাস্টার, বায়ো মেক, ইভরেকা, কেয়ার ফর্ম ল্যাবস প্রাইভেট লিমিটেড।

আইডিয়া প্রকল্পের সেরা ১০টি স্টার্টআপগুলো হলো: অল্টারইয়ুথ, অক্সিজেট, ব্লাডম্যান, ভূমিজো, জাহাজী লিমিটেড, অ্যাডভান্সড ভেইকেল সিকিউরিপিট সিস্টেমস (বাইক লক), দ্যা টু আওয়ারস্ জব, গারবেজম্যান লিমিটেড, অভিযাত্রিক, স্বাধীন মিউজিক লিমিটেড।

তরুণ উদ্যোক্তাদের অনুপ্রাণিত করতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ “বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২১” এর আয়োজন করে। যার প্রধান লক্ষ্য ছিল  তরুণ উদ্যোক্তা অর্থাৎ স্টার্টআপদের উদ্ভাবনী ধারণাকে উৎসাহিত করে দেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গড়ে তোলা।

আন্তর্জাতিক এই আয়োজনে ১৪২টি দেশে ক্যাম্পেইন শেষে  বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৫৭টি দেশ থেকে প্রাথমিক পর্যায়ে ৭ হাজারের অধিক স্টার্টআপ ও উদ্ভাবক এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করে।