পেলের রেকর্ডনামা – Allrounder BD

আসল নাম ছিল অ্যারেন্তেস ডু ন্যাসিমেন্টো এডসন।ছোটবেলায় পাইলট হতে চাওয়া ছোট্ট ছেলেটার ফুটবল নৈপুণ্যে পাড়ার ছেলেরা নাম দিয়েছিল ‘পেলে’।যার অর্থ অলৌকিক। তিনবার বিশ্বকাপ জয়, শতাব্দীর সেরা ফুটবলার, নামের পাশে বারোশো উনআশি গোল, দুই কোপা আর ছয়বার ব্রাজিলিয়ান লিগ শিরোপা জয়-ফুটবলে পেলের মাহাত্ম্য তার নামের মতোই অলৌকিক গল্পের মতোই শোনায়।

বহু ফুটবলার আসবেন যাবেন, কিন্তু পেলের কাতারে পৌঁছানোটা হয়তো তাদের পক্ষেই অসম্ভবই হয়ে উঠবে। নিজের ফুটবল ক্যারিয়ারে গড়েছেন রেকর্ডের পর রেকর্ড। তবে তার এমন কিছু যা রেকর্ড রয়েছে যা আজ পর্যন্ত কোনো ফুটবলার ভাঙতে পারেনি।

সবচেয়ে কম বয়সী ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপ খেলেছিলেন পেলে। মাত্র ১৭ বছর ২৫৯ দিন বয়সে ১৯৫৮ বিশ্বকাপ জিতেছিলেন পেলে। সে বিশ্বকাপেই গোল এবং হ্যাটট্রিক করে একাধারে বিশ্বকাপের সর্বকনিষ্ঠ গোল স্কোরার এবং সর্বকনিষ্ঠ হ্যাট্রিকম্যানের রেকর্ডও নিজের নামে করে নেন এই ফুটবল যাদুকর।

ফাইনালেও করেছিলেন ২ গোল। ব্রাজিলের সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনি। ফিফা স্বীকৃত ৯২ ম্যাচে মোট ৭৭টি গোল করেছিলেন পেলে। একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে ৩টি বিশ্বকাপ জেতা খেলোয়াড় তিনি। বিশ্বকাপ আসরগুলোতে মোট ১০ টি গোল অ্যাসিস্ট করে এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ অ্যাসিস্টের মালিক পেলে।

এক বর্ষপঞ্জিকায় নিজ দলের হয়ে করা সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনি। ১৯৫৯ সালে সান্তোসের হয়ে মোট ১২৭টি গোল করেছিলেন তিনি।

Scroll to Top