কোষ্ঠকাঠিন্যে ভোগেন? খুব কষ্ট হয়? বাড়িতে এই গাছ লাগালেই সব সমস্যা মুহূর্তে শেষ

পশ্চিম মেদিনীপুর: কোষ্ঠকাঠিন্য নিয়ে চিন্তা? জ্বর কফ এর সমস্যা? এখন সব সমস্যার সমাধান আপনার হাতের মুঠোয়। বাড়িতে লাগান এই গাছ। আর দেখুন ফলের কামাল। মালবেরি বা প্রচলিত অর্থে তুঁতেই হবে সব সমস্যার সমাধান। তুঁত ফল বা মালবেরি স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী।

জানেন মালবেরি খেলে কোন কোন রোগ থেকে প্রতিকার হয়?
তুতেঁর লালচে কালো ফল খুবই রসালো, নরম, মিষ্টি,টক ও সুস্বাদু হয়। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার জন্য পাকা তুঁত ফল উপকারী। এ ছাড়া পাকা ফলের টক-মিষ্টি রস বায়ু ও পিত্তনাশক, দাহনাশক, কফনাশক ও জ্বরনাশক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। তবে রোগের সমাধানের উপায় এখন আপনার হাতের মুঠোয়।

আরও পড়ুন: বড় স্বস্তি বিজেপি নেতা সৌমিত্র খাঁ-র! বালি-অস্ত্র মামলায় বিরাট নির্দেশ হাইকোর্টের

প্রসঙ্গত উত্তর কিংবা দক্ষিণ ভারতে তুঁত গাছ চাষ করা হয় মূলত ফলের জন্য। তুঁত গাছ পাতা ঝরা প্রকৃতির গাছ। একটি তুঁতে গাছ থেকে অনেক ফল মেলে। যা মূলত রসালো প্রকৃতির হয়। স্বাদ হয় টক মিষ্টি।ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অনেকগুলো ফল মিলে একটি ফল তৈরি করে, এটি বেরি জাতীয় ফল। এ দেশে তুঁত গাছে প্রচুর ফুল আসে ফেব্রুয়ারি-মার্চ মাসে। এবং ফল পাকে মার্চ-এপ্রিল মাসের দিকে।

আরও পড়ুন: শুভেন্দুর দাদা কৃষ্ণেন্দু অধিকারীকে পাঠানো নোটিস খারিজ, পুলিশকে ভর্ৎসনা আদালতের

কাঁচা ফলের রং সবুজ, কিন্তু পাকলে টকটকে লাল ও সম্পূর্ণ পাকলে কালচে হয়ে যায়। কাঁচা পাকা ফল যখন গাছে প্রচুর ধরে থাকে তখন তা এক দৃষ্টিনন্দন দৃশ্যের সৃষ্টি করে।খেতেও বেশ সুস্বাদু। স্থানভেদে ভিন্ন ধরনের তুঁত দেখা যায় ।যার ফল সাদা বর্ণের, পাকলে হয় হালকা গোলাপী সাদা। এ ফল টক তেমন নয়, স্বাদে খুব মিষ্টি ও রসালো। মূলত এ প্রজাতির তুঁত ফলের জন্য চাষ করা হয়। পাকা তুঁত ফলের রস থেকে জ্যাম, জেলি ও স্কোয়াশ বা পানীয় তৈরি করা যায়।

ঠান্ডা লেগে জ্বর কিংবা কাশি হলে তুঁত গাছের ফল অত্যন্ত উপকারী ফল। তুঁত গাছের ছাল ও শিকড়ের রস কৃমিনাশক। তবে যে কোনও রোগের চিকিৎসায় চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

—— রঞ্জন চন্দ

পশ্চিম মেদিনীপুর

পশ্চিম মেদিনীপুর

Published by:Suman Biswas

First published:

Tags: Bangla News, Health Tips, Mulberries

Scroll to Top